ঢাকা, বৃহস্পতিবার 8 December 2016 ২৪ অগ্রহায়ন ১৪২৩, ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র সাময়িক বরখাস্ত

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমীর অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. আবদুর রউফ মিয়া স্বাক্ষরিত এক পত্রে এই তথ্য জানানো হয়। একই পত্রে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ সাইদুর রহমানকে মেয়রের দায়িত্ব দেয়ার কথাও বলা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার স্বাক্ষরিত ওই পত্রে জানানো হয়েছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে সদর থানার মামলা নম্বর ২৪, জিআর ১০৮/২০১৫-এর অভিযোগপত্র আদালতে গ্রহণ হওয়ায় স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন, ২০০৯-এর ৩১-এর উপধারা ১ বলে তাঁকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হলো।

২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে পৌর মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা জামায়াতের আমির নজরুল ইসলাম। উচ্চ আদালত থেকে বেশ কিছু মামলায় জামিন নিয়ে গত ২০ নবেম্বর তিনি পৌর মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এই খবর পেয়ে ঘণ্টাখানেকের মধ্যে পুলিশ তাঁকে বিস্ফোরক আইনে করা একটি মামলায় গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করে। আদালতের নির্দেশে ওই দিনই তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জুবায়ের আহম্মেদ চৌধুরী জানান, চামাগ্রামের ঘটনায় বিস্ফোরক আইনে করা মামলার অভিযোগপত্র গত ২০ নবেম্বর আদালতে দাখিল করে পুলিশ। ওই অভিযোগপত্র আদালত গ্রহণ করেছেন।

এ ঘটনায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর আতাউর রহমান তীব্র নিন্দা জানিয়ে ও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামকে অন্যায়ভাবে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে সরকার তার উপর চরম জুলুম করেছে। 

আতাউর রহমানের নিন্দা : চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমীর অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামকে গত ৬ ডিসেম্বর সাময়িকভাবে বরখাস্ত করার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে ও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমীর আতাউর রহমান বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামকে অন্যায়ভাবে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে সরকার তার উপর চরম জুলুম করেছে। 

গতকাল বুধবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, একজন নির্বাচিত মেয়রকে অন্যায়ভাবে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা প্রকৃতপক্ষে জনগণের প্রতি অশ্রদ্ধা প্রদর্শনের শামিল। অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম একজন জনপ্রিয় নেতা। তাকে জনগণের খেদমত থেকে বঞ্চিত করার উদ্দেশ্যেই সরকার তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে। উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে তিনি গত ২০ নবেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পুলিশ তাকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠিয়েছে। সরকারের এহেন জুলুম-নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য তিনি দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নির্বাচিত মেয়র এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা জামায়াতে ইসলামীর আমীর অধ্যক্ষ নজরুল ইসলামকে অন্যায়ভাবে সাময়িকভাবে বরখাস্তের আদেশ অবিলম্বে প্রত্যাহার করে তাকে মুক্তি দিয়ে জনগণের খেদমত করার সুযোগ দেয়ার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ