ঢাকা, সোমবার 08 May 2017, ২৫ বৈশাখ ১৪২৩, ১১ শাবান ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

২৭টি সড়ক অবৈধ দখলে

খুলনা অফিস : খুলনা মহানগরীর নিরালা আবাসিক এলাকার ১নং সড়কের মাথায় আহমদীয়া মুসলিম জামাত মাদরাসার সামনের সড়ক দখল করে ইট বালুর ব্যবসা পরিচালনা করা হচ্ছে। ওই সড়কের দুই পাশে একাধিক বাড়ির মালিক র‌্যাম্প তৈরি করে গাড়ি উঠানোর পথ নির্মাণ করেছেন।
এছাড়া পাকা পোঁতা আর লোহার রড দিয়ে ঘর করে অথবা বাঁশ দিয়ে ঘিরে লাগানো হয়েছে শাক-সবজি ও বিভিন্ন প্রজাতির গাছ-পালা। শুধু নগরীর নিরালা আবাসিক এলাকার ১নং সড়ক নয়, এলাকাটির ১ থেকে ২৭টি সড়কের একই দশা। ধীরে ধীরে বেদখল হয়ে সব সরু হয়ে পড়ছে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ওই সব সড়ক। ফলে গাড়ি পার্কিং সড়কের উপর চলে আসছে। আর এতে যানজট সৃষ্টি হয়ে পথচারীদের চলাচলে ভোগান্তি বাড়ছে।
এলাকাবাসী জানায়, জীবন জীবিকার তাগিদে দিন দিন মানুষ শহরমুখী হচ্ছে। শহরে আসা এসব বাড়তি মানুষের চাপে ক্রমেই সম্প্রসারিত হচ্ছে খুলনা শহর। তাই এর ধারাবাহিকতা নিরালায় গড়ে ওঠে পরিকল্পিত একটি আবাসিক এলাকা। কালের বিবর্তনে ওই এলাকাটি ঘিরে এখন বড় বড় দালান-কোটা নির্মিত হয়েছে। বিভিন্ন বেসরকারি অফিস, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের বেশির ভাগ কর্মকর্তা ও ধনী ব্যক্তিরা ওই এলাকাটিতে বসবাস করছেন। কিন্তু সম্প্রতি ওই আবাসিক এলাকায় বসবাসরত বেশির ভাগ বাড়ির মালিকা সড়ক দখলে মেতে উঠেছে। যে যার মতো নানাভাবে সড়ক দখল করছে। ফলে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সড়কগুলো বেদখল আর অরক্ষিত হয়ে পড়ছে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, নিরালা-১নং সড়কের মাথায় দালান নির্মাণ সামগ্রী রেখে ব্যবসা পরিচালনা করা হচ্ছে। ওই সড়কের দু’পাশে কয়েকটি স্থানে ঘরে গাড়ি উঠানোর জন্য র‌্যাম্প ও অস্থায়ী টিনের ঘর ও বাঁশের বেড়া দিয়ে গাছ-পালা লাগানো হয়েছে।
২১নং রোডের প্রবেশমুখে নির্মাণাধীন ভবনের সামগ্রী রেখে সম্পূর্ণ সড়ক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ১৩, ১৪, ১৫, ১৬, ১৭, ১৮, ১৯ ও ২০ নং সড়কের দুই পাশে পাকা ঘর বানিয়ে লাগানো হয়েছে বিভিন্ন প্রজাতির গাছপালা। অনেক জায়গায় লোহার রড দিয়ে ঘিরে উন্মুক্ত স্থানে বেগুন, ডাটাসহ বিভিন্ন প্রকার শাক-সবজি চাষ করা হয়েছে। ২১, ২২ ও ২৩নং সড়ক দখল করে ঘরের সিঁড়ি ও ইট দিয়ে গেঁথে করা হয়েছে ফুলের বাগান।
পথচারীদের অভিযোগ, কর্পোরেশনের তদারকির অভাবে সড়কগুলো এভাবে অবৈধ দখল হচ্ছে। সড়কের উপর নির্মাণ সামগ্রী রেখে অবাধ সুষ্ঠু ও সঠিক চলাচল বাধাগ্রস্ত করা হচ্ছে। নিরাপদ চলাচলে ঝুঁকি তৈরি হচ্ছে। আর গাড়ি পার্কিং সড়কে চলে আসায় অনেক সময় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। পাশাপশি বেদখল হয়ে পড়ছে কর্পোরেশনের জায়গা।
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের স্টেট অফিসার মো. নুরুজ্জামান তালুকদার বলেন, বিষয়গুলো নলেজে রয়েছে। খুব শিগগির ওই এলাকায় অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে কর্পোরেশনের সড়ক দখলমুক্ত করা হবে।
তিনি আরও বলেন, অনেক বাড়ির মালিক সড়ক থেকে বাড়ি ভিতরে র‌্যাম্প নির্মাণ করে নিয়ে গেছেন। ওই র‌্যাম্প নির্মাণের জন্য কর্পোরেশনের কাছে থেকে অনুমতিও নেয়া হয়নি। ফলে অবৈধভাবে নির্মিত ওইসব র‌্যাম্প বুলডোজার দিয়ে ভেঙ্গে দেয়া হবে।
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল হালিম বলেন, কর্পোরেশনের মেয়র আর সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলের কাছে অভিযোগ আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তাদের অনুমতি ব্যতিত উচ্ছেদ করা মুশকিল হয়ে পড়বে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ