ঢাকা, বুধবার 06 September 2017, ২২ ভাদ্র ১৪২8, ১৪ জিলহজ্ব ১৪৩৮ হিজরী
Online Edition

কাপাসিয়া শহরের ফুটপাত বেদখল

কাপাসিয়া (গাজীপুর) থেকে শামসুল হুদা লিটন: কাপাসিয়ার প্রাণকেন্দ্র উপজেলা প্রশাসন,থানা প্রশাসন, কাপাসিয়া বাজার, সদর ইউনিয়ন কেন্দ্রিক ছোট একটি শহর। কাপাসিয়া ডিগ্রি কলেজ, পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, হরিমঞ্জুরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, বাস টার্মিনাল, ব্যাংক,বীমা, এনজিও, হাসপাতালসহ জনগুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান রয়েছে এ শহরে। শীতলক্ষ্যা নদীর কোল  ঘেঁষে গড়ে উঠেছে নাগরিক শহর। কাপাসিয়া একটি আবাসিক এলাকা। কাপাসিয়া শহরের দুঃখ হলো বেদখল ফুটপাত, বাজারের সরু অলি গলি, অপরিকল্পিত ইমারত নির্মাণ ।
কাপাসিয়া ফকির মজনু শাহ সেতু থেকে শুরু করে সাফাইশ্রী মোড় পর্যন্ত সড়কের দু’পাশের ড্রেনের উপর নির্মিত ফুটপাতে মানুষ স্বাভাবিকভাবে চলতে পারছে না । ফুটপাতে মানুষের চলাচলে মারাত্মক ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছে। নূতন দোকান পাট নির্মাণ, অবাসিক ভবন নির্মাণ কিংবা সংস্কারের সময় ফুটপাতেই ইট, বালি ,সিমেন্ট, রড মাসের পর মাস ফেলে রাখা হচ্ছে। দোকানের মালামাল ফুটপাতেই সাজিয়ে রাখা হচ্ছে। ফুটপাতে দোকানের ফ্রিজ রেখে প্রদর্শনী করা হচ্ছে। বহুতল ভবনের ছাদের পাইপ দিয়ে মানুষের গায়ে পড়ছে পানি। ভিজে যাচ্ছে পথিকের শরীর,কাপড় জামা। ফুটপাতের উপর দু’জন এক সাথে হাটা চলা যেন দায় । নারী-পুরুষের ফুটপাত ক্রসিংয়ের সময় প্রতিনিয়তই পড়তে হচ্ছে বিড়ম্বনায়।দোকানের সামনে ফাঁকা কোন জায়গা না থাকায় ফুটপাতে দাড়িয়েই ক্রেতারা মালামাল কিনতে বাধ্য হচ্ছেন ।
উপজেলা খাদ্যগুদামের মূল ফটকের ঠিক সামনে গত এক বছর ধরে ফুটপাতের স্লাব ভেঙে গেলেও আদৌ সংস্কার করা হয়নি।অন্ধকার রাতে মানুষ ভাঙ্গা স্লাবে পড়ে কর্দমাক্ত হচ্ছেন। আবার কিছু অসচেতন মানুষ চাপা ফুটপাতে দাঁড়িয়ে আনমনে গল্প-গুজব করে অযথা ভিড় জমাচ্ছেন। ফুটপাত লাগোয়া বেশ কয়েকটি চা স্টল গড়ে উঠায় অনেক সময় মানুষ ফুটপাতেই দাঁড়িয়ে চা পান করছেন । অনেকে আবার ফুটপাতেই দিব্যি দাঁড়িয়ে সিগারেট ফুকছেন । এসব কারনে সাধারণ মানুষের হাঁটা চলায় মারাত্মক অসুবিধা হচ্ছে। দিন-রাত কাপাসিয়া শহরের ফুটপাত, মানুষের চলাচলে করছে ব্যাঘাত। একইভাবে কাপাসিয়া বাজারের অলিগলিতে ক্রেতা সাধারণের চলাচলে ও দীর্ঘদিন থেকেই অসুুবিধা হচ্ছে। কিন্তু এসবের দেখার যেন কেউ নেই।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ