ঢাকা, রোববার 29 October 2017, ১৪ কার্তিক ১৪২8, ৮ সফর ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমরা সব সময় উদ্যোগী -গবর্নর

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ ব্যাংকের গবর্নর ড. ফজলে কবির বলেছেন, ২০১৭ সালে আমাদের সামনে কয়েকটি চ্যালেঞ্জ এসে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে হাওর অঞ্চলসহ বেশ কিছু জেলায় বন্যায় ক্ষয়ক্ষতি এবং সম্প্রতি রোহিঙ্গা শরণার্থীর ঢল। তবে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় আমরা সব সময় উদ্যোগী।
গতকাল শনিবার রাজধানীতে মার্কেন্টাইল ব্যাংক আব্দুল জলিল শিক্ষাবৃত্তি-২০১৬ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, মার্কেন্টাইল ব্যাংক ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান শহিদুল আহসান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী মসিহুর রহমান প্রমুখ।
ফজলে কবির বলেন, আমি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে বলব, আপনারা রোহিঙ্গাদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ান। শিক্ষার বরাদ্দ ঠিক রেখে প্রয়োজনে সিএসআর খাতের অন্য বরাদ্দ কমিয়ে তাদের সাহায্য করুন।
 মেধাবী শিক্ষার্থীরা দেশের ভবিষ্যৎ জানিয়ে গবর্নর বলেন, তাদের মেধা আমাদের চেয়েও বেশি, কিন্তু সুযোগের অভাবে সঠিক বিকাশ ঘটে না। তাদের মেধার বিকাশে ব্যাংকগুলোর উচিত শিক্ষায় বরাদ্দ বাড়ানো। কারণ আজকের মেধাবী শিক্ষার্থীরাই একদিন দেশ পরিচালনায় অংশ নেবে। তাদের প্রতি সব ব্যাংকগুলোকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। এটা আমাদের সবার দায়িত্ব, রাষ্ট্রের একার নয়। আর সামাজিক দায়বদ্ধতার সহযোগিতা কোনো করুণা নয়, শিক্ষার্থীদের অধিকার।
ড. ফজলে কবির বলেন, মার্কেন্টাইল ব্যাংক সিএসআর খাতের ৩০ শতাংশ শিক্ষায় ব্যয় করে জেনে খুব ভালো লাগল। ব্যাংকটি সব ধরনের নিয়মের মধ্য রয়েছে এবং আগামীতেও থাকবে বলে আশা করছি। এ সময় সিএসআর খাতের আওতায় প্রতি মাসে মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদানের জন্য আহ্বান জানান ফজলে কবির।
মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান একেএম সাহিদ রেজা বলেন, ২০১০ সাল থেকে মার্কেন্টাইল ব্যাংক আব্দুল জলিল শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। এ বছর এক হাজার ১০২ জন ছাত্র-ছাত্রীকে এক কোটি ৬০ লাখ টাকা শিক্ষাবৃত্তির প্রদান করা হয়েছে। এবার ৪০ জন প্রতিবন্ধীসহ ঢাকা বিভাগের ১৬৩ জন মেধাবী শিক্ষার্থীর হাতে বৃত্তির চেক ও সনদ তুলে দেন গবর্নর।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ