ঢাকা, সোমবার 12 February 2018, ৩০ মাঘ ১৪২৪, ২৫ জমদিউল আউয়াল ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

টি-টোয়েন্টি সিরিজে ঘুরে দাঁড়াবে বাংলাদেশ-সাকিব

স্পোর্টস রিপোর্টার : শ্রীলংকার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজে হারের পর টেস্ট সিরিজও হেরেছে বাংলাদেশ। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশ ভালো করবে এমনটা মনে করেন সাকিব আল হাসান। শ্রীলংকার বিপক্ষে ঢাকা টেস্ট জিততে স্পিনবান্ধব উইকেট বানিয়েছিল বাংলাদেশ। উল্টো আড়াই দিনেই টেস্টে হেরেছে বাংলাদেশ। তবে সাকিব আল হাসানের বিশ্বাস, লঙ্কানদের বিপক্ষে টি-টোয়েন্ট সিরিজে বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াবে। আঙুলের চোট পাওয়ায় সাকিব টেস্ট সিরিজে খেলতে পারেননি। তিনি খেলতে পারবেন না টি-টোয়েন্টি সিরিজেও। আগের দিন যদিও সাকিবকে রেখে প্রথম টি-টোয়েন্টির জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছিল বিসিবি। তবে সাকিব নিজেই জানিয়েছেন, টি টোয়েন্টি সিরিজে তার খেলার সম্ভাবনা নেই। গতকাল দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শুভেচ্ছাদূত হয়েছেন সাকিব। দুদক কার্যালয়ে চুক্তি স্বাক্ষরের সেই অনুষ্ঠানে সাকিবের আলোচনার অনেকটা অংশজুড়েই ছিল ক্রিকেট। নিজে না থাকলেও সতীর্থদের নিয়ে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী সাকিব। সাকিব বলেন, ‘সবারই তো লক্ষ্য ছিল যে জেতার। কিন্তু ক্রিকেটে সবাই  যেটা চায় সব সময় সেটা হয় না, এটাই স্বাভাবিক। তবে আমি খুবই আশাবাদী যে, টি-টোয়েন্টিতে আমরা ঘুরে দাঁড়াব এবং ভালো একটা রেজাল্ট করতে পারব।’ প্রথম টি-টোয়েন্টির জন্য ঘোষিত দলে নতুন মুখ পাঁচজন- আবু জায়েদ রাহী, আরিফুল হক, মেহেদী হাসান, জাকির হাসান ও আফিফ হোসেন। গত বিপিএলে ভালো পারফরম্যান্স দেখিয়ে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন তারা। সাকিবের চাওয়া নতুনরা সুযোগ পেলে স্বাধীনতা নিয়ে খেলুক। সাকিব বলেন,‘আমি আমার দল নিয়ে আশাবাদী। কারণ এই দল ভালো করার সামর্থ্য রাখে। এখানে যারাই আছেন তারা সবাই পারফরমার। বিশেষ করে যারা নতুন এসেছে তারা বিপিএলে খুব করেছে, এই কারণে তারা এখানে এসেছে। তাদেরকে নতুন করে চেনানোর কিছু  নেই। আমি চাই, সবাই স্বাধীনতা নিয়ে খেলুক। দলের জন্য ভালো কিছু করার চেষ্টা থাকবে তাদের।’ জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের আগে টি-টোয়েন্টি নিয়েই ব্যস্ত থাকবে বাংলাদেশ। শ্রীলংকায় বাংলাদেশ ও ভারতকে নিয়ে ‘নিদাহাস ট্রফি’ নামের ত্রিদেশীয় টি টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে আগামী ৮ মার্চ। সাকিব বলেন, ‘সামনে সিরিজ বলতে শ্রীলংকায় টি-টোয়েন্টি আছে। আবার জুনে খেলা, সেখানে অনেক গ্যাপ আছে। এখন যেহেতু টানা টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলোই হবে, নতুনরা ভালো করলে আমাদের অনেক সুবিধা হবে, শ্রীলংকাতে শ্রীলংকা ও ভারতের সঙ্গে যখন ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলব, আমাদের দল গঠন করতে সুবিধা হবে। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট হচ্ছে সবার সব ম্যাচে সুযোগ থাকে। এখানে একটা ওভার খেলাটা পরিবর্তন করে দেয়। টি টোয়েন্টিতে আসলে কেউ ফেবারিট হয়ে নামে না।  সেটা যেকোনো দলের সাথে হতে পারে। আয়ারল্যান্ডের সাথে অস্ট্রেলিয়া বা ভারত   খেললে তারাও  ওেফবারিট না। তাই টি-টোয়েন্টিতে আমি বলব না কেউ ফেবারিট, যারা ভালো খেলবে তারাই জিতবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ