ঢাকা, বুধবার 14 March 2018, ৩০ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৫ জমদিউস সানি ১৪৩৯ হিজরী
Online Edition

সরকার ব্যর্থতা ঢাকতেই জামায়াত নেতাদেরকে গ্রেফতার করছে -অধ্যাপক হারুনুর রশিদ খান

শ্রমিককল্যাণ ফেডারেশনের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি এবং সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমানসহ ১০ জন নেতা-কর্মীকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ শ্রমিককল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল অধ্যাপক হারুনুর রশিদ খান  গতকাল মঙ্গলবার তিনি বিবৃতি দিয়েছেন।
বিবৃতিতে তিনি বলেন, অধ্যাপক মুজিবুর রহমান তার অসুস্থ মায়ের সাথে দেখা করে ফেরার পথে স্থানীয় শীর্ষ কয়েকজন নেতার সাথে বৈঠক করছিলেন। সেখান থেকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদেরকে গ্রেফতার করে। ঘরোয়া একটি বৈঠক থেকে জাতীয় পর্যায়ের একজন শ্রমিক নেতাসহ নেতৃবৃন্দকে এভাবে গ্রেফতার করা আইনের দৃষ্টিতে চরম অন্যায়। জাতিকে নেতৃত্বশূন্য করে একদলীয় শাসন কায়েমের লক্ষ্যে সরকার ফ্যাসিবাদী কায়দায় জাতীয় নেতৃবৃন্দসহ শ্রমিক নেতৃবৃন্দর ওপরও নির্যাতন চালাচ্ছে। অথচ সভা-সমাবেশ করা প্রত্যেকটি নাগরিকের সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার।
তিনি আরো বলেন, লজ্জাজনক পরিণতির আশঙ্কায় সরকার রাষ্ট্রীয় যন্ত্র ব্যবহার করে দমন নিপীড়নের পথ বেছে নিয়েছে। কোন কারণ ছাড়াই অন্যায়ভাবে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। এর আগেও ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিয়ে তাদের দীর্ঘদিন কারাগারে আটকে রেখেছিল অবৈধ আওয়ামী সরকার। দেশের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে গণবিচ্ছিন্ন সরকার নিজেদের দেউলিয়াত্বেরই বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছে। সরকারের এ ধরনের অগণতান্ত্রিক কর্মকা- এবং দমন-পীড়নের তিনি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং নেতৃবৃন্দের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করেন।
নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় শোক : ঢাকা থেকে নেপালের কাঠমান্ডুর উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া ইউএস বাংলার একটি বিমান কাঠমান্ডু আন্তর্জাতীক বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়ে প্রায় ৫০ জন যাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যুতে গভীর শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন বাংলাদেশ শ্রমিককল্যাণ ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হারুন অর রশিদ খান।
এক শোকবাণীতে তিনি এ মর্মান্তিক বিমান দুর্ঘটনায়  নিহতদের জন্য গভীর শোক জানিয়ে  তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে তাদের শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা ও ধৈর্য ধারণ করার জন্য মহান আল্লাহ তালার নিকট দোয়া করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ