ঢাকা, বৃহস্পতিবার 27 December 2018, ১৩ পৌষ ১৪২৫, ১৯ রবিউস সানি ১৪৪০ হিজরী
Online Edition

চেম্বারে গিয়ে ড.কামাল হোসেনের ‘খোঁজ খবর’ নিল পুলিশ

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকার মতিঝিলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের অফিসে গিয়ে তার নিরাপত্তার বিষয়ে খোঁজ খবর নিল ঢাকা মহানগর পুলিশের একটি দল।
মতিঝিল থানার উপ-কমিশনার আনোয়ার হোসেন বলছেন, ‘রুটিন কাজের অংশ হিসেবে’ গণফোরাম সভাপতি কামাল হোসেনের নিরাপত্তার বিষয়ে ‘খোঁজ খবর’ নিতে গিয়েছিলেন তারা। আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে ১০-১২ জন পুলিশের একটি দল গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে মতিঝিলে মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স ভবনে কামাল হোসেনের চেম্বারে যান।
এদিকে ভোটের তিন দিন আগে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতার অফিসে পুলিশ যাওয়ার খবরে উৎসুক জনতা ওই ভবনের নিচে ভিড় করে। ছুটে যান সংবাদকর্মীরাও।
পুলিশ কর্মকর্তারা কামাল হোসেনের অফিসে গিয়ে তার সঙ্গে কথা বলে নিচে নেমে আসেন। কিছুক্ষণ পর আবারও তারা ওপরে গিয়ে কামাল হোসেনের সঙ্গে কথা বলেন। পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নে উপ-কমিশনার আনোয়ার বলেন, “এটা আমাদের রুটিন ওয়ার্ক। তার নিরাপত্তার কোনো ইস্যু আছে কি না- সে বিষয়ে কথা বলতে এসেছিলাম।”
কামালের অফিসে পুলিশ যাওয়ার খবরে গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেছিলেন, পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়কের সঙ্গে দেখা করতে চান। সেজন্যই কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা এসেছেন।
উপ-কমিশনার আনোয়ার ওই কার্যালয় থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিকরা জানতে চান পুলিশ কমিশনার কখন দেখা করবেন।  উত্তরে আনোয়ার বলেন, “আমরা এখনও জানি না।”
পুলিশ চলে যাওয়ার পর গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু সাংবাদিকদের বলেন, “উনি (আনোয়ার) পুলিশ কমিশনারের বার্তা নিয়ে এসেছিলেন। পুলিশ কমিশনার দেখা করতে চাচ্ছিলেন। কিন্তু যানজটে আসতে পারেননি। “উপ কমিশনার তখন জিজ্ঞেস করেছিলেন, আমাদের সভাপতির নিরাপত্তার জন্য বাড়তি কোনো ব্যবস্থা দরকার আছে কি না। আমাদের সভাপতি বলেছেন, তার প্রয়োজন নেই। তবে পুলিশ যদি মনে করে, তাহলে দিতে পারে।” অফিসে এসে খোঁজ খবর নেওয়ায় পুলিশকে কামাল ধন্যবাদ জানিয়েছেন বলেও জানান মন্টু।
নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে নানা অভিযোগ জানাতে মঙ্গলবার কামাল হোসেনের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনে গিয়েছিল ঐক্যফ্রন্ট। কিন্তু সিইসি কে এম নূরুল হুদার সঙ্গে কামালের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের পর বৈঠক শেষ না করেই বেরিয়ে আসেন তারা।
ঐক্যফ্রন্টের নেতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী পরে সাংবাদিকদের বলেন, “আমরা দুঃখের কাহিনী শোনাচ্ছি সিইসিকে, কিন্তু সিইসি পুলিশকে ডিফেন্ড করছেন, যেন মিথ্যা কথা বলতে গেছি আমরা। সিইসি বার বার বলছেন- আমাকে দেখান; আমাকে দেখান। বিভিন্ন নির্বাচনী এলাকায় পুলিশি নির্যাতনের কথা কামাল সাহেব বলছেন, আর সিইসি বলছেন- আমাকে দেখান।”
বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার পুলিশের পক্ষে ‘ভালো অবস্থান’ নেন বলেও মন্তব্য করেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী।
নির্বাচন কমিশনের বৈঠক নিয়ে পুলিশের সঙ্গে কামালের কোনো কথা হয়েছে কি না জানতে চাইলে মোস্তফা মহসিন মন্টু বলেন, ইসির ঘটনা নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।
ভোটের তিন দিন আগে নির্বাচনী পরিবেশ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ঐক্যফ্রন্টের এই নেতা বলেন, “আমরা তো পোস্টারই লাগাতে পারছি না। আমাদের ওপর হামলা হচ্ছে। গতকালও হামলা হয়েছে। এ বিষয়গুলো আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে খেয়াল রাখতে হবে।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ