ঢাকা, সোমবার 24 February 2020, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

পাকিস্তানকে ১৪১ রানের টার্গেট দিল বাংলাদেশ

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে পাকিস্তানকে ১৪২ রানের টার্গেট দিয়েছে বাংলাদেশ।

ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করে শুরুটা দারুণ করেছিলেন তামিম ইকবাল ও নাঈম হাসান। কিন্তু পরের ব্যাটসম্যানরা তা ধরে রাখতে পারেননি। ১৫ ওভার শেষে বাংলাদেশের স্কোর ছিল ৩ উইকেটে ১০০ রান। সেখান থেকে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৫ উইকেটে ১৪১ রান।

৮ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৫০ রান সংগ্রহ করে তারা। দলীয় ৭১ রানে তামিম ইকবাল রান আউটে কাটা পড়েন। আউট হওয়ার আগে তিনি ৩৪ বলে ৩৯ রান করেন।

দলীয় ৯৮ রানে তামিমের মতোই রান আউটে কাটা পড়েন লিটন কুমার দাস। নিজের বোলিংয়ে ফিল্ডিং করে দারুণ থ্রো করেন শাদাব খান। বল সরাসরি আঘাত করে স্ট্যাম্পে। ১৩ বলে ১২ রান করেন আউট হন লিটন। লিটনের পর দ্রুত ফিরে গেছেন মোহাম্মদ নাঈম। লেগ স্পিনার শাদাব খানের গুগলি উড়িয়ে মারতে গিয়ে লং অনে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন নাঈম। ৪১ বলে ৪৩ রান করেন তিনি। তার আউটের সময় বাংলাদেশের রান ৩ উইকেটে ৯৮।

এর পর অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে জুটি গড়েন আফিফ হোসেন। দ্রুত রান তোলার তাড়ায় এলোমেলো শট খেলছিলেন আফিফ। শেষমেশ বোল্ড হয়ে ৯ রানে সাজঘরে ফেরেন আফিফ। সৌম্য সরকার উইকেটে এসেই বাউন্ডারি ভাল কিছু করার ইঙ্গিত দিয়েছিল। কিন্ত তিনি নিজের ইনিংসকে বড় করতে পারেনি। বাঁহাতি পেসার শাহীন শাহ আফ্রিদির স্লোয়ার ডেলিভারিতে বোল্ড হন সৌম্য। ৫ বলে ৭ রান করে সৌম্য ফিরেছেন সাজঘরে।সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে দারুণ খেলেছিলেন আফিফ হোসেন ও সৌম্য সরকার।কিন্তু এই ম্যাচে হতাশ করলেন তারা।

অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১৯ রানে অপরাজিত থাকেন।৩ বলে ৫ করে অপরাজিত থাকেন মোহাম্মদ মিথুন। পাকিস্তানের বোলারদের মধ্যে শাহীন শাহ আফ্রিদি ১টি, হারিস রউফ ১টি ও শাদব খান ১টি করে উইকেট নেন। নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে পাকিস্তানের বোলাররা লক্ষ্য নাগালে রেখেছেন।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ