ঢাকা, শনিবার 15 February 2020, ২ ফাল্গুন ১৪২৬, ২০ জমাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

আপস করে সরকার পতন হবে না-মান্না

স্টাফ রিপোর্টার: বর্তমান সরকারকে হটাতে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে মাঠে নামাতে হবে। গদি ছাড়াতে হলে আন্দোলন-সংগ্রাম, লড়াই করতে হবে। পুতুপুতু আর আপস করে হবে না বলে জানিয়েছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।
গতকাল শুক্রবার রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উদ্যোগে ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজনীয়তা শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি কৃষিবিদ মেহেদী হাসান পলাশের সভাপতিত্বে ও সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন-বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, বিলকিস ইসলাম প্রমুখ।
মান্না বলেন, যতই আন্দোলন করেন, গোলটেবিল বৈঠক, মানববন্ধন, সমাবেশ করেন-যাই করেন না কেন ওরা (আওয়ামী লীগ) গদি ছাড়বে না। ওদেরকে গদি ছাড়াতে হবে। গদি ছাড়াতে হলে আন্দোলন-সংগ্রাম, লড়াই করতে হবে, পুতুপুতু আর আপস করে হবে না।
তিনি আরও বলেন, দেশের মানুষ অসহায়বোধ করছে। লঞ্চে-বাসে, মাঠে-ঘাটে কেউ আওয়ামী লীগের কথা বলে না। আমাকে অনেকেই বলে, যত যা-ই করেন উনাকে (শেখ হাসিনা) ক্ষমতা থেকে সরাতে পারবেন না। আমি বলি, তিনি কি হিটলার-মুসোলিনি, হোসনে মোবারকের চেয়েও বেশি ক্ষমতাধর? কারও ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়। সুতরাং, তাকেও একদিন ক্ষমতা ছাড়তে হবে।
ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) সমালোচনা করে মান্না বলেন, সুইচ অন করলে বাতি জ্বলবে, অফ করলে বাতি নিভে যাবে। মেশিন আমার কথামতো চলবে। মেশিন যদি নির্বাচন কমিশনারের হাতে থাকে, নির্বাচন কমিশনারের কথামতো চলবে। যে নির্বাচন কমিশনার বলে, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হলে রাতের আধারে ভোট দেয়ার সুযোগ থাকবে না, তার অর্থ হচ্ছে-রাতের আঁধারে ভোটের সাক্ষী নির্বাচন কমিশনার নিজেই।
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রসঙ্গে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আমি খালেদা জিয়াকে স্যালুট জানাই। পত্র-পত্রিকায় দেখছি, কেউ কেউ বলছে, উনি প্যারোলে যাবেন। পত্রিকায় পড়েছি, তার বাম হাত বাঁকা হয়ে গেছে, ডান হাত বাঁকা হয়ে যাচ্ছে। তারপরেও তিনি কোনো কাগজে স্বাক্ষর করছেন না। উনি বলেছেন, গণতন্ত্রের জন্য, জনগণের জন্য অধিকার আদায়ের সংগ্রামে শেষ পর্যন্ত আমি আছি। বেগম জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাগারে রাখা হয়েছে তাকে মুক্তি দিতে হবে।
ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অবস্থা চায়ের দোকানের মতো বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। তিনি বলেন, দেশের মানুষ স্বাধীনতার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত করার কারণে। কাজেই যারা অবৈধভাবে দেশ চালাচ্ছেন তাদের অবস্থা চায়ের দোকানের মতো। অনেক রেস্টুরেন্টে লেখা দেখবেন এখানে রাজনৈতিক আলাপ নিষেধ কিন্তু মালিক যখন আসেন তখন তিনি নিজেই রাজনৈতিক আলাপ শুরু করে দেন। আওয়ামী লীগের সেই অবস্থা তারা নিজে করবে কিন্তু অন্যকে করতে দেবে না।
আলাল বলেন, গণতন্ত্র ও ভোটের অধিকার পারস্পারিক সম্পর্ক যুক্ত শব্দ। এই অধিকারগুলোর জন্য কিছু পৃষ্ঠপোষক থাকে, কিছু প্রতিষ্ঠান থাকে রাষ্ট্রে। একে একে সেই প্রতিষ্ঠানগুলোকে ভেঙে দেয়া হয়েছে। মানুষের মেরুদণ্ডগুলোকে মাখনের মেরুদণ্ডে পরিণত করা হয়েছে। অবৈধ টাকা পয়সার সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যা দুর্নীতি করা যায় তা করে নিচ্ছে। তার প্রমাণ হলো প্রধান নির্বাচন কমিশন, বিচার বিভাগ,এবং রাষ্ট্রের অন্যতম প্রশাসনিক প্রতিষ্ঠানগুলো। এসবের বিরুদ্ধে সবচেয়ে প্রতিবাদী কণ্ঠটিকে দুই বছর ধরে কারাগারে বন্দি করে রাখা হয়েছে।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন যিনি তার উত্তরসূরিকে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। এর কারণ- তিনি ভোটাধিকারের কথা বলেন, গণতন্ত্রের কথা বলেন। অথচ দেশের মানুষ স্বাধীনতার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত করার কারণে। কাজেই যারা অবৈধভাবে দেশ চালাচ্ছেন তাদের অবস্থা চায়ের দোকানের মতো। অনেক রেস্টুরেন্টে লেখা দেখবেন এখানে রাজনৈতিক আলাপ নিষেধ কিন্তু মালিক যখন আসেন তখন তিনি নিজেই রাজনৈতিক আলাপ শুরু করে দেন। আওয়ামী লীগের সেই অবস্থা তারা নিজে করবে কিন্তু অন্যকে করতে দেবে না।
তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে ভোট ডাকাতির নির্বাচনে নির্বাচিত একজন এমপি বাবলু তার নাম। কুয়েতের সিআইডি পুলিশ হয় তাকে বন্দি করেছে। অথবা কোথাও তিনি আশ্রয় নিয়েছেন বা পালিয়ে গেছেন। দুর্নীতির বিশাল অপরাধে ও মানবপাচারের অপরাধে পুলিশ তাকে খুঁজছে। ধর্ষণ আজ মহামারি আকার ধারণ করেছে। প্রতিদিন পত্রিকায় যেভাবে ধর্ষণ খুনের সংবাদ আসছে তাতে মা-বোনেরা শিউরে ওঠে অথচ প্রতিরোধ ব্যবস্থা কমে যাচ্ছে। এভাবে দেশ চলতে পারে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ