ঢাকা, শুক্রবার 6 March 2020, ২২ ফাল্গুন ১৪২৬, ১০ রজব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

চৌগাছায় কপোতাক্ষ নদ এখন ময়লার ভাগাড়!

চৌগাছা (যশোর) সংবাদদাতা : যশোরের চৌগাছায় কপোতাক্ষ নদ যেন পৌর শহরের ময়লার ভাগাড়। চৌগাছা শহরের হাট বাজার,কল-কারখানার বর্জ্য প্রকাশ্যেই ফেলা হচ্ছে নদে। পৌর শহরের ব্রীজঘাট এলাকায় সবচেয়ে ভয়াবহ পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানান, শহরের পানি নিষ্কাশনের জন্য পৌরসভা ড্রেনগুলোতে সরাসরি মলমূত্রের লাইন সংযোগ দেয়া হয়েছে। ফলে মানববর্জ্য পৌরসভা ড্রেন দিয়ে সরাসরি নদে গিয়ে পড়ছে। শহরের কশাইখানা, মুরগীর বিষ্টা, চামড়া, রক্ত, মরামুরগী, লোম-পাকনা,কারখানারবর্জ্য, ক্লিনিকের বর্জ্য, হাটাবাজারের সৃষ্ট ময়লা-আবর্জনা সরাসরি নদের তীরে ফেলা হচ্ছে। আর এসব ময়লা গড়িয়ে পড়ছে নদের পানিতে। এতে কপোতাক্ষ নদ রূপ নিয়েছে ময়লা ভাগাড়ে। এতে নদের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে ধ্বংস হচ্ছে নদের নাব্যতা। হুমকির মুখে পড়েছে নদের জীববৈচিত্র্য। এসব ময়লার কারণে নদের পানিতে পচা বিকট দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে নদের পাড়ে ও আশপাশের বসতিদের জীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে সরকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও নদ-নদী, খাল হাওড়-বাওড় দখল মুক্ত করছেন। কিন্তু এ নদে বর্জ্য ফেলা বন্ধ ও ময়লার ভাগাড় সরানোর ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ চোখে পড়েনি। তাই নদের পানি দূষণ ও পরিবেশ ক্রমেই মারাত্মক স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পরিণত হচ্ছে। দেখার যেন কেউ নেই। 

এ ব্যাপারে চৌগাছা বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইবাদৎ হোসেন বলেন, যে নদের পানি এক সময় মানুষ পান করতেন, ওজু-গোসল, জামা-কাপড় পরিষ্কার ও রান্না-বান্নার কাজে ব্যবহার করত। সে নদে ময়লা-আবর্জনা সরাসরি ফেলায় প্রতিদিন পানির দুর্গন্ধ বেড়েই চলেছে। ফলে নদের পাড়ে দাঁড়ানোই যায় না। তিনি বলেন, নদের ব্রিজ ঘাট এলাকায় প্রকাশ্যে ময়লার ভাগাড় তৈরি করা হয়েছে। 

স্কুল-কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষার্থীসহ ব্রিজ ব্যবহারকারী হাজার-হাজার মানুষ নদ পারা-পারে দুর্গন্ধে দারুন ভাবে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। অন্য দিকে নদের জায়গা দখলে মেতে উঠেছে ভূমিদস্যুরা। 

নদপাড়ের ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান, হাফিজুর রহমান ও আনোয়ার হোসেন বলেন, কপোতাক্ষ নদকে উপজেলার পৌর শহর, নারায়নপুর বাজার, কাবিলপুর বাজার, ধুলিয়ানী বাজারসহ নদের পাড়ের হাট বাজারের সব আবর্জনা ফেলার স্থান হিসেবে নির্ধারণ করা হয়েছে। একইভাবে শিল্পকারখানার বর্জ্য ফেলা হচ্ছে নদে। ময়লা আবর্জনা মলমূত্র নদে ফেলায় নদের পানি পচে নষ্ট হচ্ছে। মরছে মাছ বাড়ছে পানি বাহিত রোগ ফলে দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে নদের পাড়ে বসবাসকারী মৎস্যজীবীরা।

এ ব্যাপারে কপোতাক্ষ নদ বাঁচাও আন্দোলনের যশোর জেলা কমিটির আহ্বায়ক হাফিজুর রহমান বলেন, একটি পক্ষ জোর করেই নদকে ময়লার ভাগাড়ে পরিণত করছে, যা মেনে নেয়া যায় না। 

এ ব্যাপারে চৌগাছা পৌর মেয়র নুর-উদ্দীন আল মামুন হিমেল বলেন, ময়লা ফেলার ভাগাড় না থাকায় কপোতাক্ষ নদের ব্রীজ ঘাট এলাকায় শহরের ময়লা ফেলা হয়। যেটা অন্যায়, নদের পানিতে বিভিন্ন ধরনের ময়লা ফেলায় পানি নষ্ট হচ্ছে। দারুণ ঝুঁকির মধ্যে পড়ছে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য। ময়লা ফেলার জন্য নতুন স্থান তৈরির করা হয়েছে। অতিদ্রুত সেখানে ময়লা ফেলা হবে।

এ ব্যাপারে চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, কপোতাক্ষ নদ রক্ষায় ইতোমধ্যে বিভিন্ন স্থান থেকে অবৈধ পাটাতন স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। অতিদ্রুত ময়লার ভাগাড় স্থানান্তর করার ব্যবস্থা করা হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ