ঢাকা, শনিবার 14 March 2020, ৩০ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৮ রজব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

নিজেদের যোগ্য করে গড়ে তুলতে না পারলে দেশ ও বিশ্বকে কিছুই দেয়া সম্ভব হবে না 

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদী বলেছেন, নিজেদের যোগ্য করে গড়ে তুলতে না পারলে দেশ ও বিশ্বকে কিছুই দেয়া সম্ভব হবে না। তিনি বলেন, জাতি হিসাবে যাতে দাঁড়াতে পারি, সে জন্যে মেরুদন্ড ঠিক রাখতে হবে। দেশের অর্থনীতি যাতে ভেঙ্গে না পড়ে, দেশ যেন দেউলিয়া না হয় তার জন্যে অর্থনীতির শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ভূমিকা রাখতে হবে। করোনা ভাইরাস ব্যক্তির মৃত্যু ঘটাচ্ছে, কিন্ত আমাদের মেধা যদি ভাইরাস আক্রান্ত হয় তাহলে পুরো জাতিকে মাশুল দিতে হবে।

গত বৃহস্পতিবার নগরীর একটি অভিজাত রেস্তোরাঁয় আইআইইউসি‘র ইকনোমিক্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগ (ইবি) আয়োজিত এমএসএস প্রোগ্রামের সপ্তম ব্যাচ-এর নবাগত ছাত্র-ছাত্রীদের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদী এ অভিমত ব্যক্ত করেন। আইআইইউসি‘র ইকনোমিক্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মোঃ শরীফুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, আইআইইউসি‘র ট্রেজারার প্রফেসর ড. আবদুল হামিদ চৌধুরী, আইআইইউসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য এবং ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহছানউল্লাহ, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবদুল মান্নান চৌধুরী এবং ইকনোমিক্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের এডভাইজার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। স্বাগতঃ বক্তব্য রাখেন ওরিয়েন্টেশন কমিটির আহ্বায়ক ইবি বিভাগের সহযোারী অধ্যাপক মনির আহমেদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এমএসএস প্রোগ্রামের সমন্বয়কারী ও ইবি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ আমজাদ হোসেন। নবাগত ছাত্র-ছাত্রীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, হাবিব পিয়াস ও আনিকা মোরশেদ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ইবি বিভাগের এমএসএস প্রোগ্রামের সমন্বয়কারী মোঃ আমজাদ হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি‘র প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলী আজাদী বলেন, জীবনকে অর্থবহ করতে হলে পড়তে হবে। অধ্যয়নে থাকলে লাইফ হ্যাং হবেনা। তিনি বলেন, অর্থ অনর্থের মূল বলা হয়ে থাকে। কিন্তু অর্থ হচ্ছে সবকিছুর মূলে, অর্থনীতিতে উচ্চ শিক্ষা লাভের আগে এই কথাটা উপলব্ধি করতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি‘র ট্রেজারার প্রফেসর ড. আবদুল হামিদ চৌধুরী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিশ্বমানের র‌্যাংকিংয়ে আইআইইউসি‘র অবস্থান অনেক মর্যাদার। নৈতিকতার সাথে সমন্বিত শিক্ষা এই বিশ্ববিদ্যালয়কে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের কাছে অনেক বেশি গ্রহণযোগ্য করে তুলেছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি‘র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য এবং ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহছানউল্লাহ বলেন, সারা বিশ্বে শোষণের হাতিয়ার হলো সুদ। সুদ ধনীকে আরো ধনী করেছে, গরীবকে নিঃস্ব করেছে। সুদের কারবার যারা করে, তারা আল্লাহ ও রাসুলের (সাঃ) বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে। তিনি বলেন, এভাবে অর্থনীতিকে ছেড়ে দেয়া যারেনা, অর্থনীতির লাগাম টেনে ধরতে হবে। জাতিকে দুর্দশা থেকে বাঁচাতে এবং অর্থনৈতিক বৈষম্য দূরীকরণে আইআইইউসি‘র অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থীদের ভূমিকা রাখতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবদুল মান্নান চৌধুরী বলেন, বর্তমান আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে অর্থনীতি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অর্থনীতির প্রধান সমস্যা এখন দুর্নীতি এবং দারিদ্র্য। এই সমস্যা সমাধানে জ্ঞানের প্রধান উৎস সেই শাশ্বত গ্রন্থের গভীর অধ্যয়নে মনোনিবেশ করতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইকনোমিক্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের এডভাইজার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, অর্থনীতি আর রাজনৈতিক অর্থনীতি এক কথা নয়। এখন প্রান্তিক জনসংখ্যা খুব দ্রুত বাড়ছে আর এটাই অর্থনীতির জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। পণ্যের মূল্য কমালে রাজস্ব আয় বাড়বে- এই সহজ কথাটি যত তাড়াতাড়ি সবার উপলব্ধিতে আসবে ততই সবার জন্য কল্যাণকর। আইআইইউসি‘র অর্থনীতি বিষয়ের কোর্স ডিজাইন অত্যন্ত চমৎকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি অধ্যয়ন করে উত্তীর্ণ হতে পারলেই শিক্ষার্থীরা আন্তর্জাতিক মানের জ্ঞানে সমৃদ্ধ হবে। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ