ঢাকা, বুধবার 1 April 2020, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, ৬ শাবান ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

কর্মস্থলে নেই জনপ্রতিনিধিরা, নিশ্চিত হচ্ছে না হোম কোয়ারেন্টাইন

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসের উৎপত্তি বাংলাদেশে নয়। চীন থেকে শুরু হয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছাড়িয়ে এটি বাংলাদেশে এসেছে। আর বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত যাদের করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে তাদের কেউই বিদেশি নয়, প্রবাসী বাংলাদেশি। অর্থাৎ আক্রান্ত অন্য দেশ থেকে তারা করোনার জীবাণু সঙ্গে নিয়ে এসেছেন। গত কয়েকদিন ধরে সংবাদ মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে বিদেশফেরতদের ঔদ্ধত্যের খবর। তারা সতকর্তা মানছেন না। বিদেশ থেকে ফেরার পরে ১৪ দিনের যে কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা, তারা তা থাকছেন না। এতে তাদের পরিবার-পরিজন যেমন ঝুঁকিতে রয়েছেন তেমনি সারাদেশ হুমকির মুখে।

এদিকে স্থানীয় সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের অনেক জনপ্রতিনিধি নিজ নির্বাচনী এলাকা ও কর্মস্থলে অবস্থান না করায় হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জনপ্রতিনিধিদের কাছে পাঠানো অফিস-আদেশ থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

'করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কর্মস্থলে অবস্থান' বিষয়ের অফিস আদেশে বলা হয়েছে- লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান সমূহের (সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ) জনপ্রতিনিধিরা (মেয়র/কাউন্সিলর/চেয়ারম্যান/ভাইস চেয়ারম্যান/সদস্য) অনেকেই নিজ নির্বাচনী এলাকা বা কর্মস্থলে অবস্থান করেন না। ফলে বিদেশ প্রত্যাগত নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টাইন বিষয়টি নিশ্চিত করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে এবং গঠিত কমিটিকে সার্বিক সহায়তা প্রদানে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এমতাবস্থায়, বিদেশ প্রত্যাগত নাগরিকদের হোম কোয়ারেন্টাইনের বিষয়টি নিশ্চিত করাসহ করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আবশ্যিকভাবে নির্বাচনী এলাকা বা কর্মস্থলে অবস্থান করে স্বাস্থ্য বিভাগ এবং স্থানীয় প্রশাসনকে সার্বিক সহায়তা দেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে অফিস আদেশে।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ