ঢাকা, সোমবার 6 April 2020, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ১১ শাবান ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ভৈরবে ইতালিফেরত ব্যক্তির মৃত্যু, করোনা সন্দেহ স্থানীয়দের

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় ইতালিফেরত আবদুল খালেক (৬০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় লোকজনের সন্দেহ, ওই প্রবাসী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।

জানা গেছে, আব্দুল খালেকের বাড়ি শহরের জগন্নাথপুর এলাকায়। রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে তিনি শ্বাসকষ্ট নিয়ে শহরের আবেদীন হাসপাতালে গেলে চিকিৎসক তাকে আইসোলেশন সেন্টারে যেতে বলেন। কিন্তু তার স্বজনরা তাকে সেখানে না নিয়ে ‘ডক্টরস চেম্বার’ নামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেন। সেখানে রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়। পরে স্বজনরা তাকে বাড়িতে নিয়ে যান।

এ ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন মৃত ব্যক্তির চারপাশের ১০টি ঘর এবং দুটি বেসরকারি হাসপাতালের মানুষের চলাচল সীমিত করেছে। ঘটনার রাতে দুই হাসপাতালে যাঁরা কর্মরত ছিলেন, তাঁদের হাসপাতালের ভেতরেই অবস্থান করতে বলা হয়েছে। পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে মৃত ব্যক্তির বাড়ির চারপাশেও।

স্থানীয়রা আরো জানান, ওই ব্যক্তি দেড় যুগ আগে ইতালিতে যান। তাঁর দুই ছেলে বর্তমানে ইতালিতে আছেন। ইতালির পরিস্থিতি নাজুক পর্যায়ে যাওয়ার পর গত ২৮ ফেব্রুয়ারি তিনি দেশে ফিরে আসেন।তবে ওই ব্যক্তি ইতালি থেকে ফেরার বিষয়টি উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির নজরে আনেননি।এমনকি স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য কোনো হাসপাতালেও যাননি এবং এলাকায় স্বাভাবিক চলাফেরা করছিলেন।প্রতিবেশীরা এই নিয়ে শঙ্কিত থাকলেও লোকলজ্জার কারণে তারা সরাসরি তাকে বা প্রশাসনকে কিছু জানাননি। শনিবার থেকে ওই ব্যক্তি জ্বর ও শ্বাসকষ্টে শুরু হয়। 

আব্দুল খালেক (৬০) গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ইতালি থেকে দেশে ফিরেছেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদ।

উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদ জানান, মৃত ওই ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন কি-না সেটা জানতে ঢাকা থেকে আইইডিসিআর’র প্রতিনিধিরা ভৈরবে এসেছেন। তারা নমুনা সংগ্রহের কাজ করছেন।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ