ঢাকা, বৃহস্পতিবার 26 March 2020, ১২ চৈত্র ১৪২৬, ৩০ রজব ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

আল্লামা সাঈদীর মুক্তি দাবি করলেন জাগপা সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান

জাগপা সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান বলেছেন, আমি আপনাদের সবাইকে মহান স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানাই। মহান স্বাধীনতা দিবসে বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি সেইসব অকুতোভয় বীর সেনানী আর সম্ভ্রমহারা মা, বোনদের যাদের অদম্য সাহস আর আত্নত্যাগে আমাদের বিজয় এসেছিল। রক্ত ঝরা স্বাধীনতার মাসে,  দীর্ঘ ২৫ মাস পর দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি পেয়েছেন। আমি মহান রাব্বুল আলামিন এর কাছে শুকরিয়া জানাই। আমি আনন্দিত কিন্তু একই সাথে দুঃখিত কারন বিএনপি কিংবা ২০ দল আন্দোলন-সংগ্রাম কিংবা আদালতের মাধ্যমে দেশনেত্রীকে মুক্ত করতে পারে নাই। এই ব্যর্থতা আমাদের সবার, এই ব্যর্থতা সমগ্র জাতির। দেশনেত্রীর সাজা স্থগিত করে ৬ মাসের জন্য মুক্তি দেওয়ার জন্য আমি ধন্যবাদ জানাই প্রধানমন্ত্রী ও সরকারকে। তবে নিজ বাসা থেকে চিকিৎসা নেওয়ার শর্তটিকে বিবেচনা করে উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশনেত্রী এবং ওনার পরিবারের সদস্যদের পছন্দের হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার অনুমতি দেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাই। বয়স বিবেচনায় ও মানবিক কারনে যেভাবে দেশনেত্রীর শর্ত সাপেক্ষে ৬ মাসের মুক্তি হয়েছে একইভাবে এই করোনা পরিস্থিতিতে অন্যান্য রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দেরও মুক্তি হওয়া প্রয়োজন। তিনি বয়স বিবেচনায় ও মানবিক কারনে আল্লামা দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর মুক্তি দাবি করেন।
গতকাল বুধবার গণমাধ্যমকে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, দেশের করোনা পরিস্থিতি আমাদের আয়ত্তে নেই। প্রাথমিক পর্যায়ে সরকারের দায়িত্বহীনটা আমাকে ব্যথিত করেছে। সরকারের টনক নড়তে অনেক দেরি হয়েছে, এর মধ্যেই আমাদের যা ক্ষতি হওয়ার হয়ে গেছে। এখন এই ভাইরাসের সাথে লড়তে আমাদের নিজেদের সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। দেশনেত্রীর মুক্তির সময় হাসপাতালের সামনে এবং ওনার বাসভবনের সামনের দৃশ্য দেখে আমি শঙ্কিত। আপনারা দেশনেত্রীর মুক্তির সংবাদে আবেগে আপ্লুত কিন্তু দেশনেত্রীর কথা চিন্তা করেই আপনাদের এখন শান্ত থাকতে হবে, নেত্রীর থেকে দূরে থাকতে হবে। দেশনেত্রীর মুক্তি সংবাদ আমাকেও আনন্দিত করেছে, আমারও ইচ্ছে করছে ওনার পরিবারের অনুমতি নিয়ে একবার ওনার সাথে সাক্ষাত করার কিন্তু এরকম পরিস্থিতিতে তা উচিৎ নয়। দেশনেত্রীকে বিশ্রাম নিতে দিন, আপনারা এই করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিজ নিজ বাসায় অবস্থান করেন। আপনারা অবগত আছেন আমরা স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের সব কর্মসূচি বাতিল করেছি। কোন স্থানে জাগপা’র কোন আলোচনা সভা, মিছিল, র‌্যালি, গনজমায়েত যাতে না হয় এ ব্যাপারে দলের নেতাকর্মীরা সজাগ দৃষ্টি রাখবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ