সোমবার ২৯ নবেম্বর ২০২১
Online Edition

পাঁচপীর মাজার রেল-স্টেশনের বেহাল অবস্থা

কাহালু (বগুড়া) সংবাদদাতা : বগুড়ার কাহালু উপজেলার পাঁচপীর মাজার রেলস্টেশন প্রতিষ্ঠার পর প্রায় ৩ যুগ অতিবাহিত হলেও এখনও ৫ মিনিট পূর্বেও ট্রেন আসার খবর জানতে পারে না কর্তৃপক্ষ। আজও কোন উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি, স্টেশনটির জরাজির্ন দশা। নেই কোন স্টেশন মাস্টার, টেলিফোন সংযোগ, ট্রেন আসা-যাওয়ার সিংনাল, বিদ্যুৎ সংযোগ এমন কি প্রয়োজনীয় কর্মকর্তা কর্মচারী। যাত্রীদের টিকিট দেয়া হয় অনুমানের ভিত্তিতে, যথাসময় ট্রেন না আসলে যাত্রীদের নিকট বিক্রীত টিকিট ফেরৎ নিতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ। প্রতিষ্ঠার পর উক্ত স্টেশনে ১ জন স্টেশন মাস্টারসহ ২ জন কর্মচারী দেয়া হলেও ১ জনকে প্রত্যাহার করা হয় ২৩/২৪ বৎসর পূর্বে। তখন থেকে ১ জন কর্মচারী ট্রেনের টিকিট বিক্রয়সহ যাবতীয় কাজ করায় ট্রেন স্টেশনে দাঁড়ানোর পর অনেক যাত্রী টিকেট কাউন্টারে গিয়ে তাকে না পেয়ে বিনা টিকিটে ট্রেনে উঠতে বাধ্য হয়। লোকবল অভাবে স্টেশনে পূর্বে পার্শ্বে ১শ' গজের মধ্যে ১টি গেট (যানবাহনসহ পারা-পারের পথ) এবং পশ্চিমে অনুরূপ ২টি গেট থাকলেও তা থাকে অরক্ষিত। ফলে প্রায় দুর্ঘটনা ঘটে। বর্তমানে অবকাঠামো বলতে যা আছে তা হল টিন দিয়ে ঘেরা একটি টিকিট ঘর, পুরাতন ২টি গোডাউন। সংস্কার অভাবে তা খসে পড়ছে। আবার রাতের অাঁধারে টিনসহ অবকাঠামো খোয়া যাচ্ছে। তবে কালের সাক্ষী হয়ে অক্ষত রয়েছে স্টেশনের ২ পার্শেব পাঁচপীর মাজার লেখা নাম ফলক। এলাকাবাসী রেলস্টেশনটি জনবল, সংস্কার ও অবকাঠামো উন্নয়নের দাবি করেন। রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল সান্তাহার-বোনার পাড়া রেলের (আন্তঃনগর ট্রেন ছাড়া) সকল ট্রেন এই স্টেশনে দাড়ায় এবং বিপুলসংখ্যক যাত্রী উঠা-নামা করলেও দেখভালের অভাবে সরকার প্রতিবছর হারাচ্ছে মোটা অংকের রাজস্ব।

বেড়ায় জামায়াতের রুকন সম্মেলন

অবিলম্বে মাওলানা নিজামীসহ সকল নেতৃবৃন্দকে নিঃশর্ত মুক্তি দিন

বেড়া (পাবনা) সংবাদদাতা : বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী বেড়া উপজেলা নেতৃবৃন্দ বলেছেন, জামায়াতের সকল নেতাকর্মীকে দুনিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠা, আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জন ও পরকালে মুক্তিলাভের জন্য কোন রকম শৈথিল্য প্রদর্শন করা যাবে না। ইসলামী আন্দোলন সফল করে তোলার ক্ষেত্রে সকল দুর্বলতা পরিহার করতে হবে। নেতৃবৃন্দ ইসলাম বিরোধী শক্তির ষড়যন্ত্রের মোকাবিলায় সকল নেতাকর্মীকে সজাগ ও সতর্ক দৃষ্টি রাখার আহবান জানান। নেতৃবৃন্দ গত ৬ এপ্রিল সকালে উপজেলা জামায়াতের অস্থায়ী কার্যালয়ে মাসিক রুকন সম্মেলনে বক্তব্য দানকালে একথা বলেন। উপজেলা আমীর ডা. আবদুল বাসেত খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নায়েবে আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা আবু দাউদ, সেক্রেটারি মাওলানা আতাউর রহমান, পৌর আমীর আলহাজ্ব জামাল উদ্দিন চৌধুরী, সেক্রেটারি মালানা জাহাঙ্গীর আলম সেলিম, উপজেলা কর্মপরিষদ সদস্য মাস্টার মোজাম্মেল হক, মাওলানা আবদুল মজিদ, পৌর সাংগঠনিক সম্পাদক আবু দাউদ মল্লিক বাবু প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ বলেন, মাওলানা নিজামীসহ সকল জামায়াত নেতৃবৃন্দকে অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ