বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

দেশের কারাগারগুলো করোনা ভাইরাসের বড় ধরনের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে -ডা. শফিকুর রহমান

সদ্য কারামুক্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অভিনন্দন জানিয়ে ও কারাগারে আটক মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, এটিএম আজহারুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল খালেক মণ্ডলসহ ষাটোর্ধ্ব বয়সের বন্দীদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান বিবৃতি দিয়েছেন।
গতকাল বুধবার দেয়া বিবৃতিতে তিনি বলেন, ২৫ মাসেরও বেশি সময় কারাগারে বন্দী থাকার পর সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া ২৫ মার্চ বুধবার মুক্তি লাভ করেন। তার মুক্তিতে জনগণের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। আমরা বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য একাধিকবার সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছিলাম। কিন্তু সরকার বিভিন্ন রাজনৈতিক মামলার আইনী বেড়াজালে তাকে কারাগারে আটক করে রাখে। কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করায় আমরা সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমরা তার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ূ কামনা করছি। দেশের চলমান পরিস্থিতিতে সরকার তাকে মুক্তি দিয়ে যে শুভবুদ্ধির পরিচয় দিয়েছে সে জন্য সরকারকে সাধুবাদ জানাই।
তিনি বলেন, দেশ এক কঠিন পরিস্থিতির দিকে ধাবিত হচ্ছে। বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস ক্রমশ বিস্তৃত হচ্ছে। আমরা লক্ষ্য করছি যে, দেশের কারাগারগুলোও করোনা ভাইরাসের বড় ধরনের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, দেশের প্রতিটি নাগরিকের নিরাপদ স্বাস্থ্য নিশ্চিত করা সরকারের দায়িত্ব। করোনা সংক্রমণ থেকে উত্তরণের জন্য সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা। এ সামাজিক দায়িত্ববোধ থেকে ইতোমধ্যে অনেক দেশ বন্দীদের মুক্তি দিয়ে উদাহরণ স্থাপন করেছে। বাংলাদেশ অনুরূপ উদাহরণ স্থাপন করুক জনগণ তা চায়। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে কারাগারে আটকদের মধ্যে বিশেষ করে যাদের বয়স ষাটোর্ধ্ব তাদের দ্রুত মুক্তি দেয়া দরকার বলে আমরা মনে করি। বিশেষ করে বিশ্ববরেণ্য মুফাস্সিরে কুরআন মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, জনাব এটিএম আজহারুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল খালেক মণ্ডল দীর্ঘদিন যাবত কারাগারে বন্দী জীবন-যাপন করছেন। দেশের এ ক্রান্তিলগ্নে তারা সকলেই করোনা ভাইরাসের হুমকিতে রয়েছেন।
করোনা ভাইরাসে সংক্রমণের পরিস্থিতিতে মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, এটিএম আজহারুল ইসলাম, মাওলানা আব্দুল খালেক মণ্ডলসহ ষাটোর্ধ্ব বয়সের আটক সকল বন্দীদের অবিলম্বে মুক্তি দেয়ার জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ