রবিবার ২১ জুলাই ২০২৪
Online Edition

ঢাবিতে রমযানের প্রোগ্রাম নিষিদ্ধ করায় কলেজ শিক্ষক পরিষদের প্রতিবাদ

 

সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রমযান বিষয়ক যে কোনো আয়োজনে অনুমতি না দিতে ডিন, প্রভোস্ট, চেয়ারম্যান ও পরিচালকদের কাছে চিঠি প্রেরণ করেছেন বিশ^বিদ্যালয়টির প্রক্টর। গত ১৫ মার্চ প্রক্টর ড. মো. মাকসুদুর রহমান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক নূর নবী মানিক এবং জেনারেল সেক্রেটারি অধ্যাপক রবিউল ইসলাম এক বিবৃতিতে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। নেতৃদ্বয় বলেন, আইন অনুষদের শিক্ষার্থীদের ‘প্রোডাক্টিভ রমাদান’ শীর্ষক আয়োজিত সেমিনারে সন্ত্রাসী হামলাকে কারণ হিসেবে উল্লেখ করে রমযান বিষয়ক যেকোনে আয়োজনে অনুমতি না দিতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। এর আগে ঢাবির বটতলায়ি Al Quran Rectation Program আয়োজন করায় আরবি বিভাগের চেয়ারম্যানকে শোকজ করা হয়েছে এবং আয়োজকদের কেন শাস্তির আওতায় আনা হবে না জানতে চেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, একই ক্যাম্পাসে যেখানে অন্য ধর্মের উৎসব প্রশাসনের বিশেষ তদারকিতে করা হয় সেখানে মুসলমানদের ইসলামী যে কোনো কার্যক্রমই কেন বার বার বাধা দেওয়া হচ্ছে তা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুসলিম শিক্ষার্থীসহ ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের মধ্যে তীব্র অসন্তোষ তৈরি হয়েছে। প্রশাসনের এ ধরনের আচরণ ধর্মীয় অনুভূতি আঘাত করার শামিল। একই সাথে মুসলিম শিক্ষার্থীদের প্রতি এ বৈষম্য তথা প্রকাশ্যে ধর্ম পালনে বাধা প্রদান সংবিধানের ৪১নং ধারার সুস্পষ্ট লঙ্ঘনব। পবিত্র রমযান মাসে সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম শিক্ষার্থীদের সংবিধান স্বীকৃত অধিকার হরণ করা আমাদের ক্ষুব্ধ করেছে। আমরা ঢাবি প্রশাসনের এহেন ধৃষ্টতা ও সংবিধান বিরোধী কর্মকাণ্ডের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।  নেতৃদ্বয় বলেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসসহ সারা দেশে রমযানে নানা অজুহাতে মুসলিমদের প্রতি বৈষম্যমূলক নির্দেশনা দেওয়া থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি দাবি জানাচ্ছি। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ