সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪
Online Edition

ত্যাগ চাই মর্সিয়া ক্রন্দন চাহি না

মিয়া হোসেন : মহান আল্লাহ তা’য়ালার নির্ধারিত নিয়মে সময়ের ঘূর্ণায়নে আজ হিজরী নববর্ষের মহররম মাসের চতুর্থ দিন। এ মাসের ১০ তারিখ অর্থাৎ আশুরার দিনে অনেক ঘটনার অবতারণা হয়েছে। ফলে মাসটি স্মরণীয় হয়ে আছে। এদিনেই প্রথম মানব আদি পিতা হযরত আদম (আঃ)কে সৃষ্টি করা হয়েছে। তাকে এদিনেই বেহেশতে স্থান দেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে হযরত আদম (আঃ)কে আশুরার দিনেই দুনিয়ায় পাঠিয়ে আল্লাহ তাকে প্রতিনিধি মনোনীত করেছেন। পবিত্র কুরআনে আল্লাহ তায়ালা এভাবে তুলে ধরেছেন, ‘‘আর তোমার পালনকর্তা যখন ফেরেশতাদেরকে বললেন, আমি পৃথিবীতে একজন প্রতিনিধি বানাতে যাচ্ছি, তখন ফেরেশতাগণ বললো, আপনি কী পৃথিবীতে এমন কাউকে সৃষ্টি করবেন যে দাঙ্গা হাঙ্গামা সৃষ্টি করবে এবং রক্তপাত ঘটাবে? অথচ আমরা প্রতিনিয়ত আপনার গুণকীর্তন করছি এবং আপনার পবিত্র সত্তাকে স্মরণ করছি। তিনি বললেন, নিঃসন্দেহে আমি যা জানি, তোমরা তা জান না। আদম (আঃ)কে সৃষ্টির পর আল্লাহ ফেরেশতাদেরকে সেজদা করার নির্দেশ দিলেন। তখন ইবলিস ব্যতীত সবাই আদম (আঃ)কে সেজদা করলো। সে নির্দেশ পালন করতে অস্বীকার করলো এবং অহংকার প্রদর্শন করলো, ফলে সে কাফেরদের অন্তর্ভুক্ত হলো। আল্লাহ বললেন, হে আদম তুমি এবং তোমার স্ত্রী জান্নাতে বাস করো। সেখান থেকে যা ইচ্ছা খাও, তবে এ বৃক্ষের কাছে যেয়ো না। তাহলে তোমরা গোনাহগার হয়ে যাবে। অতঃপর শয়তান উভয়কে প্ররোচিত করলো, যাতে তাদের অঙ্গ, যা তাদের কাছে গোপন ছিল, তাদের সামনে তা প্রকাশ করে দেয়।

হযরত আদম (আঃ) ও বিবি হাওয়া শয়তানের প্ররোচনায় আল্লাহর হুকুম ভঙ্গ করে ফেলেন। ফলে তাদের লজ্জাস্থান তাদের সামনে খুলে গেল। প্রতিপালক আল্লাহ তাদেরকে ডেকে বললেন, আমি কি তোমাদেরকে এ বৃক্ষ থেকে নিষেধ করিনি এবং বলিনি যে শয়তান তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু। তখন তারা উভয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করলেন। আল্লাহ বললেন তোমরা নেমে যাও, তোমরা একে অপরের শত্রু। তোমাদের জন্য পৃথিবীতে বাসস্থান আছে এবং একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ পর্যন্ত জীবন যাপন আছে। এ ঘটনার দিনই ছিল আশুরার দিন। ইবলিস এখনো মানুষের শত্রু, সে বিভিন্নভাবে প্রতারণা করে থাকে। তার ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ